মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২০ নভেম্বর ২০১৯

বগুড়া-রহনপুর ৪০০ কেভি বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন হচ্ছে


প্রকাশন তারিখ : 2019-11-20

বগুড়া হতে চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর পর্যন্ত ৪০০ কেভি ক্ষমতাসম্পন্ন বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন নির্মাণকাজ শুরু করেছে পাওয়ার গ্রীড কোম্পানী অব বাংলাদেশ লিঃ (পিজিসিবি)। ভারত হতে আমদানিতব্য বিদ্যুৎ দেশের অভ্যন্তরে সঞ্চালন করা এবং সামগ্রিক সঞ্চালন নেটওয়ার্ক শক্তিশালী করতে এই লাইন নির্মাণ করা হচ্ছে। বুধবার (২০ নভেম্বর ২০১৯খ্রিঃ) পিজিসিবি’র প্রধান কার্যালয়ে কাজটির জন্য ভারতীয় প্রতিষ্ঠান কল্পতরু পাওয়ার ট্রান্সমিশন লিঃ এর সঙ্গে দ্বি-পাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষর করেছে পিজিসিবি।

বগুড়া হতে রহনপুর পর্যন্ত ৪০০ কেভি এ লাইনের দৈর্ঘ্য ১০৪ কিলোমিটার। নিকটবর্তী গ্রীড উপকেন্দ্রে বিদ্যুৎ সঞ্চালন করতে এই কাজের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কাজ হিসেবে ২৩০ কেভি ক্ষমতাসম্পন্ন ১১ কি.মি. এবং ১৩২ কেভি ক্ষমতাসম্পন্ন ২৭ কি.মি. সঞ্চালন লাইনও নির্মাণ করা হবে। ‍বুধবার পিজিসিবি এবং কল্পতরু’র মধ্যে স্বাক্ষরিত এ কাজের চুক্তিমূল্য ৫১৩ কোটি টাকা (প্রায়)।উন্নয়ন সহযোগি সংস্থা এডিবি, পিজিসিবি এবং বাংলাদেশ সরকার সম্মিলিতভাবে এ কাজে অর্থায়ন করছে।

অনুষ্ঠানে পিজিসিবি’র পক্ষে কোম্পানী সচিব (অতিঃ দায়িত্ব) মোঃ জাহাঙ্গীর আজাদ এবং কল্পতরু’র পক্ষে ব্যবস্থাপক (বিজনেস ডেভেলপমেন্ট) অরিত্র বোস চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেন। চুক্তিতে বলা হয়, আগামী ২৪ মাসের মধ্যে টার্নকী পদ্ধতিতে কাজটি সম্পন্ন করে সঞ্চালন লাইন পিজিসিবি’র কাছে হস্তান্তর করবে কল্পতরু।

ভারতের ঝাড়খন্ডে আদানী গ্রুপ ১,৬০০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ করছে। এই বিদ্যুৎ বাংলাদেশ সীমান্ত হতে রহনপুর পর্যন্ত আনতে বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে ২৮ কিলোমিটার দীর্ঘ পৃথক আরেকটি ৪০০ কেভি সঞ্চালন লাইন নির্মাণ করা হবে। ওই লাইনে বিদ্যুৎ রহনপুর পর্যন্ত আনা হবে। রহনপুর হতে এ বিদ্যুৎ বগুড়া হয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে সঞ্চালন করতে ১০৪ কিলোমিটার লাইনটি নির্মাণ করা হচ্ছে।

চুক্তি স্বাক্ষরপর্বে পিজিসিবি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম কিবরিয়া, প্রকল্প পরিচালক মোঃ আলমগীর হোসেন, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আবদুর রশিদ খান, কল্পতরু’র সিনিয়র ম্যানেজার জয় সরকার, ম্যানেজার সিদ্ধার্থ যাদব সহ উভয়পক্ষে উর্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


Share with :

Facebook Facebook